আইনজীবী তালিকাভুক্তির বয়স নির্ধারণ করা উচিত

  • 0

আইনজীবী তালিকাভুক্তির বয়স নির্ধারণ করা উচিত

Category : News

নিজস্ব প্রতিবেদক :
আইনজীবী হিসেবে তালিকাভুক্তির জন্য বয়সের সময়সীমা নির্ধারণ করে দেওয়া উচিত। তাহলে এই পেশায় আসতে মেধাবীরা উদ্ধুদ্ধ হবে। কারণ, রুল অব ল প্রতিষ্ঠা করতে হলে মেধাবী বিচারক ও আইনজীবী প্রয়োজন।

শনিবার সুপ্রিম কোর্টের আরবিট্রেশন সেন্টারে ‘হিস্টোরি অব বাংলাদেশ বার কাউন্সিল ও জাজমেন্ট অন বার কাউন্সিল রুলস’ শীর্ষক এক কর্মশালায় বক্তারা এ কথা বলেন।

বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল মেডিয়েশন সোসাইটি এই কর্মশালার আয়োজন করে।

বক্তরা বলেন, আইনজীবী হিসেবে তালিকাভুক্তির সর্বোচ্চ বয়স  ৪০ বা ৪২ করা যেতে পারে। এ সংক্রান্ত রায়ের পর্যবেক্ষণে আপিল বিভাগও বিষয়টি ভেবে দেখতে বার কাউন্সিলকে পরামর্শ দিয়েছেন। যারা যত কম বয়সে আইন পেশায় ঢুকতে পারবেন তারা এই পেশায় তত অবদান রাখতে পারবেন।

বার কাউন্সিলের ইতিহাস বলতে গিয়ে বক্তারা বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান রুল অব ল প্রতিষ্ঠার জন্য স্বাধীনতার মূল স্তম্ভের প্রতি আনুগত্যশীল মেধা সম্পন্ন ও স্বাধীনচেতা আইনজীবী তৈরির উপর জোর দিতেন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুই প্রথম বার কাউন্সিলে ৫০ হাজার টাকা দিয়ে আইনজীবী কল্যাণ তহবিলের সূচনা করেন।

বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল মেডিয়েশন সোসাইটির সেক্রেটারি অ্যাডভোকেট সমরেন্দ্র নাথ গোস্বামীর সঞ্চালনায় কর্মশালার মূল বিষয়ের উপর বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সভাপতি বিচারপতি দেলোয়ার হোসেন, অ্যাডভোকেট সূজনী ত্রিপুরা ও জাবেদ পারভেজ। এছাড়া অ্যাডভোকেট এ এইচ এম জুবায়ের হোসেন, মো: আনিছুর রহমান খান, মুহাম্মদ রাফিউল ইসলাম, আফসানা বেগম, মো: আলমগীর হোসেন, ড. সাদিকুর রহমান, রহিম সারোয়ার আলোচনায় অংশ নেন।

অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন অ্যাডভোকেট সমরেন্দ্র নাথ গোস্বামী।